বুধবার , 20 জুন 2018
ব্রেকিং

মুসলমান হওয়ায় হেনস্তা হতে হয় নাদিয়া হুসেইনকে

NADIA-DD

গ্রেট ব্রিটিশ বেক অফ প্রতিযোগিতা’য় শিরোপা বিজয়ী নাদিয়া হুসেইন বলেছেন, ‘প্রতিটি জঙ্গি হামলার পর মাথার ওপর মেঘ নিয়ে আমাকে বাড়ির বাইরে বের হতে হয়। যদি আমি ট্রেনে থাকি, মানুষ আমার থেকে দূরে সরে বসে অথবা খোদা না খাস্তা যদি আমার পিঠে ব্যাগ অথবা স্যুটকেস থাকেৃআর আমি বাসের অপেক্ষায় থাকি, তখন লোকজনের ধাক্কা খাই, আমার ওপর বিভিন্ন জিনিস ছুড়ে মারা হয়।’
বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক নাদিয়া হুসেইন সম্প্রতি টাইম ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জঙ্গি হামলার পর একজন মুসলমান হিসেবে তাকে কী ধরনের পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়, সে বিষয়টি জানিয়েছেন।

সম্প্রতি রানি এলিজাবেথের ৯০তম জন্মদিন উৎসবের কেক তৈরি করেছিলেন নাদিয়া। রান্নাবিষয়ক প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠান ‘গ্রেট ব্রিটিশ বেক অফ’ ব্রিটেনের জনপ্রিয় টেলিভিশন অনুষ্ঠানগুলোর মধ্যে একটি। গত বছর চূড়ান্ত পর্বটি দেখতে ১ কোটি ৩৪ লাখ দর্শক টেলিভিশনের সামনে ছিলেন। ওই প্রতিযোগিতার পর থেকে সংবাদপত্রে কলাম লিখছেন নাদিয়া। ব্যাপক জনপ্রিয়তা সত্ত্বেও ধর্ম ও হিজাব পরা নিয়ে বিভিন্ন সময় অনলাইনেও হেনস্তার শিকার হতে হয়েছে তাকে। এর অংশ হিসেবে গত জানুয়ারিতে তার বাড়িতে পুলিশও এসে হাজির হয়েছিল।
নাদিয়া হুসেইন বলেন, ইসলামভীতি থেকে অনেকেই তাকে হেনস্তা করে। তবে এটি ভয়াবহ আকার ধারণ করে প্রতিটি জঙ্গি হামলার পর।
গত বছরের নভেম্বরে প্যারিসে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার পর তার ভাইকে অনেক বাজে মন্তব্য শুনতে হয়েছে বলেও জানান নাদিয়া।

print

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.