মঙ্গলবার , 18 ডিসেম্বর 2018
ব্রেকিং

ভারী বর্ষণে বন্যার কবলে প্যারিস সহ সারা ফ্রান্স

Cjzd3fr flood

নবকণ্ঠ ডেস্কঃ বুধবার থেকে ফ্রান্সের বড় একটি অংশ পানিতে ডুবে আছে। মুষলধারে চলে আসা বৃষ্টির পানিতে দেশটির শহরের রাস্তা-ঘাট থেকে শুরু করে মফস্বল এলাকার বৃষ্টির পানি একসাথে এসে সেইন নদীর দুই তীরে ফুলে-ফেঁপে বিশাল প্লাবনের সৃষ্টি করেছে।

৩১ মে মঙ্গলবার থেকে শুর হওয়া ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে দেশটির প্রায় এক চতুর্থাংশে জীবনযাত্রা প্রায় অচল করে দিয়েছে। লোকজন ঘর-বাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যাচ্ছে। বন্যার পানিতে রাস্তা ঘাটে আটকে আছে যানবাহন। নর্মান্দি থেকে বাখগুন্দি -জনজীবন ক্ষতির সম্মুখীন হতে বাকি নেই। কয়েকদিনে খারাপ আবহাওয়া ও ভারী বর্ষনে ফ্রান্স সহ উত্তর ইউরোপের কয়েকটি দেশ আক্রান্ত হয়ে পড়েছে।dd

রাজধানী প্যারিসে, সেইন নদীর তীর ভরে উঠেছে এবং এর পানির উচ্চতা ১ জুন সকালে ৪.১৮ মিটার রেকর্ড করা হয় যা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। এতে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক সহ নদীর দুই তীর পানিতে ডুবে আছে।

উত্তর ফ্রান্সে নদীর পানির উচ্চতা ৩ মিটারেরও বেশী বেড়ে যাবার পর উদ্ধারকর্মীরা সেখানকার লোকজনকে উপর তালার দিকে স্থানান্তরে কাজ করে চলেছেন। লেন্স এর স্থানীয় অধিবাসীরা জানান, উদ্ধারকারী টহ্ল বিমানের মাধ্যমে সকলের নিরাপদ স্থানান্তর নিশ্চিত করার চেষ্টা চলছে। বিপদগ্রস্ত সর্বশেষ ব্যক্তিটিকেও সুরক্ষা দিতে উদ্ধারকর্মীরা কাজ করে যাচ্ছেন।

উত্তর ফ্রান্সের শহর ভিলনাভ-সু-ইয়ান এর মেয়র সিরিল বুলুখ বলেন, “১৯৮৪-৮৫ এবং ২০০১ এ আমরা বন্যা দেখেছি, তবে এমন বিপর্যস্ততা দেখতে হয় নি, যেমন ১৪ টি হ্যামলেট এর ৭/৮ টিই বন্যায় আক্রান্ত”।ddsdfasd

সাখাঁও শহরের একটি জেলখানা থেকে ৪০০ বন্দীকে সরিয়ে নিয়ে খালি করে ফেলা হয়েছে। এ১০ মোটরওয়ে তে আটকে পড়া গাড়িগুলোকেও অর্ধ-ডুবন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে কাছের শহর অর্লিন্স এর পার্কিং এ পৌঁছানো হয়। প্রায় ৬৫০ টি গাড়ি আটকে যায় তাৎক্ষনিক সৃষ্ট এ প্লাবনে। এতে সহযোগিতা করেন ফরাসী সেনাসদস্যরা।

দক্ষিণ প্যারিসের লুয়াখে এবং পূর্ব প্যারিসের সেইন-এ-মা’ন এ দুটি সরকারী অধিদপ্তরকে রেড এলার্টে রাখা হয়েছে। সেইন-এ-মা’ন এর কর্তা জঁ-লুক-মাক্স এর ফরাসী রেডিওকে দেয়া তথ্যমতে, এ পর্যন্ত ১৭ টি শহরের স্কুল-কলেজ সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।ddsdasw

এ বন্যার কারণে ফ্রেঞ্চ ওপেন টেনিস টুর্নামেন্ট দ্বিতীয় দিনের মত বাধাগ্রস্ত হল। এ বিরুপ আবহাওয়ার শুরু গত ২৮ মে শনিবার প্যারিসে চলমান বাচ্চাদের একটি জন্মদিন অনুষ্ঠানে বজ্রপাতের মাধ্যমে। এতে ১১ জন আহতকে হাসপাতালে নেয়ার খবর পাওয়া গেছে।

print

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.