শনিবার , 20 অক্টোবর 2018
ব্রেকিং

ফ্রান্স আওয়ামী লীগ এর উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস উদাযাপন।

নবকন্ঠ ডেস্ক –erreerere

ইতিহাসের বেদনাবিধুর ও বিভীষিকাময় এক দিন জাতীয় শোক দিবস।। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদাতবার্ষিকী। ১৯৭৫ সালের এইদিন অতিপ্রত্যুষে ঘটেছিল ইতিহাসের সেই কলঙ্কজনক ঘটনা। সেনাবাহিনীর কিছু উচ্ছৃঙ্খল ও বিপথগামী সৈনিকের হাতে সপরিবারে প্রাণ দিয়েছিলেন বাঙালির ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ সন্তান, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।   এই নৃশংস হামলার  ঘটনায় আরো যারা প্রাণ হারিয়েছিলেন তারা হলেন : বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, পুত্র শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল, রোজী জামাল, ভাই শেখ নাসের ও কর্নেল জামিল, বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে মুক্তিযোদ্ধা শেখ ফজলুল হক মনি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, শহীদ সেরনিয়াবাত, শিশু বাবু, আরিফ রিন্টু খানসহ অনেকে। আগস্ট মাসটি তাই বাংলাদেশের মানুষের কাছে শোকের মাসে পরিণত হয়েছে।
বাংলাদেশ ও বাঙালির সবচেয়ে হদয়বিদারক ও মর্মস্পর্শী শোকের দিনকে শক্তিতে রূপান্তরিত করতে আসুন বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ গড়ে তুলি ।ফ্রান্স আওয়ামী লীগ আয়োজিত শোক দিবসের আলোচনায় এসব আহবান জানান বক্তারাalll
প্যারিস এর পোর্ট দো প্যান্টিন এর অভিজাত হলরুমে  ফ্রান্স আওয়ামী লীগ এর উদ্যোগে  ভাবগম্ভীর্জতায় জাতির জনকের  ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ,জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়। ফ্রান্স আওয়ামী লীগ এর সভাপতি মহসিন উদ্দিন খান লিটন এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক দিলওয়ার হোসাইন কয়েস এর সঞ্চালনায়  আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন  ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম। এসময় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা নৌ কমান্ডো সদস্য এনামুল হক,যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা শেখ মোহাম্মদ আলী, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন ,সিনিয়র সহ সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান সেলিম ,সুনাম উদ্দিন খালেক, জাহাঙ্গীর খান।বক্তব্য রাখেন জসিম উদ্দিন ফারুক ,আকরাম খান ,হাসান সিরাজ ,মিজান সরকার ,শাহীন আরমান চৌধুরী ,তারিক হাসান,ফয়সাল আহমেদ বেলাল,বাহলুল মৃধা ,আজিজুর রহমান, আজমল হোসেন ,মাজেদ আহমেদ, কামাল আহমেদ, মিজানুর রহমান, লাবু চৌধুরী, মাসুদ পাঠান,তারিকুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন,ফ্রান্স ছাত্র লীগ সভাপতি আশরাফুর রহমান,মহিলা নেত্রী লিপি রানী প্রমুখ।

শুরুতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।কোরান তেলোয়াত ,গীতা পাঠ ,বাইবেল পাঠ করে শহীদদের বিদেহী আত্মার শান্তির জন্য মাগফেরাত কামনা করা হয়। সভার শুরুতে ৭৫এর ১৫ই আগস্টে ঘাতকের হাতে নিহত বংঙ্গবন্ধু সমেত সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে বঙ্গবন্ধু পরিবারের জন্য এক মিলাদও দোয়া মাহফিল করে অনুষ্ঠান সমাপ্ত করা হয়।

print

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.