শুক্রবার , 19 জুলাই 2019
ব্রেকিং

নৃশংস অপরাধের ভুক্তভোগীদের সাহায্যার্থে বাংলাদেশ দূতাবাস, দি হেগ, নেদারল্যান্ডসের সভা

দি হেগ, ৫ এপ্রিল ২০১৯:

বর্বর এবং নৃশংসতম অপরাধ সমূহ যেমন গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধ এবং আগ্রাসীমূলক অপরাধে ক্ষতিগ্রস্থদের দুর্দশা লাঘবে দি হেগস্থ আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) ট্রাস্ট ফান্ড ফর ভিকটিমস (টিএফভি)-এ রাষ্ট্রীয় পর্যায়ের পাশাপাশি জনহিতকর সংগঠন এবং ব্যক্তি পর্যায়ে আর্থিক সহায়তা প্রদানের আহ্বান জানানো হয়েছে। ট্রাস্ট ফান্ড ফর ভিকটিমস-এর পরিচালনা পর্ষদের সদস্য হিসেবে নেদারল্যান্ডসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শেখ মুহম্মদ বেলাল গত ২৮ মার্চ ২০১৯ তারিখে নেদারল্যান্ডসের বাংলাদেশ দূতাবাসে অনুষ্ঠিত টিএফভি’র এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশসমূহের আঞ্চলিক বৈঠকে উক্ত আহ্বান জানান।

এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের আইসিসি’র সদস্য রাষ্ট্রসমূহের পাশাপাশি অন্যান্য দেশসমূহের রাষ্ট্রদূতগণ/প্রতিনিধিরা উক্ত বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশসমূহের প্রতিনিধি হিসেবে টিএফভি’র পরিচালনা পর্ষদের সদস্য নির্বাচনে সমর্থন দেবার জন্য রাষ্ট্রদূত বেলাল এই অঞ্চলের রাষ্ট্রদূত/প্রতিনিধিদের ধন্যবাদ জানিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে উল্লেখিত অপরাধসমূহে ক্ষতিগ্রস্থদের এবং তাদের পরিবারের দুর্দশা লাঘবে ট্রাস্ট ফান্ডের কর্মকাণ্ডে এই অঞ্চলের দেশসমূহ আরও ব্যাপকভাবে এগিয়ে আসবে। তিনি আরও মন্তব্য করেন বাংলাদেশ থেকে রুয়ান্ডায় লক্ষ লক্ষ নিপীড়িত ভুক্তভোগী মানবতার সেবায় এবং বিচারের অপেক্ষায় আছেন।

ট্রাস্ট ফান্ড ফর ভিকটিমস-এর নির্বাহী পরিচালক জনাব পিটার ডি বান উপস্থিত অতিথিদের সামনে ট্রাস্ট ফান্ডের কার্যক্রম বিস্তারিতভাবে তুলে ধরার পাশাপাশি ভুক্তভোগী, তাদের পরিবার এবং সংশ্লিষ্ট কম্যুনিটির গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধ এবং আগ্রাসীমূলক অপরাধে ক্ষতিগ্রস্থদের শারীরিক, মানসিক দুর্দশা লাঘবে আইসিসি’র নির্দেশনা মোতাবেক বিভিন্ন অঞ্চলের সহায়তা কার্যক্রম তুলে ধরেন। জনাব বান আইসিসি’র ক্ষতিপূরণ স্কিম উল্লেখ পূর্বক মন্তব্য করেন যে আন্তর্জাতিক অপরাধ বিচার ইতিহাসে এধরণের নজির প্রথম যে ভুক্তভোগীরা তাদের শারীরিক/মানসিক ক্ষতির জন্য যথাযোগ্য ক্ষতিপূরণ দাবী করতে পারে। তিনি আরও উল্লেখ করেন যে এটাই প্রথম যে অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিতের পাশাপাশি নৃশংস অপরাধের ভুক্তভোগীদের যথাযোগ্য মর্যাদা নিশ্চিত করা হচ্ছে।

বৈঠকে ট্রাস্ট ফান্ড ফর ভিকটিমস-এর চেয়ারম্যান জনাব ফেলিপে মিখেলিনিও বক্তব্য রাখেন। নৃশংস অপরাধের ভুক্তভোগীদের শারীরিক/মানসিক দুর্দশা লাঘবের মাধ্যমে যথাযথ পুনর্বাসনে যে আর্থিক সহায়তা প্রয়োজন তা বিস্তারিত তুলে ধরে তিনি আইসিসি’র সদস্য রাষ্ট্রসমূহের পাশাপাশি অন্যান্য রাষ্ট্রসমূহকেও ‘মানবিকতার সদস্য’ হিসেবে ট্রাস্ট ফান্ডে সহায়তার জন্য জোরালো আহ্বান জানান।

বৈঠকে অন্যান্য অতিথিদের পাশাপাশি আফগানিস্তান, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, জর্ডান, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, শ্রীলংকা, প্যালেস্টাইন, থাইল্যান্ড, সংযুক্ত আরব আমিরাত ইত্যাদি দেশসমূহের রাষ্ট্রদূতগণ/প্রতিনিধিরা যোগদান করেন।

print

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.