মঙ্গলবার , 23 এপ্রিল 2019
ব্রেকিং

প্যারিসের রিপাবলিকে বৈশাখ অনুষ্ঠানে হাজার হাজার প্রবাসীদের ঢল

ফ্রান্সে বসবাসরত  হাজার হাজার  প্রবাসী বাংলাদেশিদের  আনন্দঘন উপস্থিতিতে ফ্রান্সের প্যারিসের রিপাবলিক চত্বরে পালিত হলো পয়লা বৈশাখ। 


 ফ্রান্স প্রবাসীদের শুভেচ্ছা জানান বৈশাখী আয়োজনের পৃষ্ঠপোষক কমিউনিটি নেতা সাত্তার আলী সুমন। 

ফ্রান্সে বসবাসরত  হাজার হাজার  প্রবাসী বাংলাদেশিদের  আনন্দঘন উপস্থিতিতে ফ্রান্সের প্যারিসের রিপাবলিক চত্বরে পালিত হলো পয়লা বৈশাখ। 
নববর্ষে উৎসবের রঙে পুরনো সকল ভেদাভেদ ভুলে দিনব্যাপী আয়োজনের মধ্য দিয়ে ফ্রান্সের প্যারিসে উদযাপিত হয়েছে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ ।এ উপলক্ষে ফ্রান্সের বাংলাদেশি সাংস্কৃতিক সংগঠন স্বরলিপি সাংস্কৃতিক শিল্পী গোষ্ঠী আয়োজন করে হাজারো কন্ঠে বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত, শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা,বৈশাখী পিঠা ঊৎসব, নৃত্যনুষ্ঠান, পান্তা ইলিশ এবং জমকালো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ।
বাংলা  নববর্ষকে উপলক্ষ করে প্যারিসের রিপাবলিকে বাংলাদেশিদের মিলনমেলায় পরিনিত হয়। নানা বয়সের ও নানা শ্রেণীপেশার মানুষ বৈশাখী সাজে জড়ো হন উৎসবে। বাংলাদেশিরা একে অপরের সাথে কুশল বিনিময়ের পাশাপাশি দেশ বিদেশের সবাইকে শুভেচ্ছা জানান।  
স্বরলিপি সাংস্কৃতিক শিল্পী গোষ্ঠী ফ্রান্স এর সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরীর শুভেচ্ছা বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া জমকালো এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন  ফ্রান্স আওয়ামীলীগ সভাপতি বেনজির আহমেদ সেলিম, সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা ও বৈশাখী অনুষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক সাত্তার আলী সুমন , দূতাবাসের প্রথম সচিব নির্জর অধিকারী। 
 অনুষ্টানে ফ্রান্স প্রবাসীদের শুভেচ্ছা জানান বৈশাখী আয়োজনের পৃষ্ঠপোষক কমিউনিটি নেতা সাত্তার আলী সুমন। 
অনুষ্ঠান যৌথভাবে উপস্থাপনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক গৌতম বিশ্বাস ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাকিল সরকার।

মেলা প্রাঙ্গনে দেশীয় বিভিন্ন প্রকার পন্যের ষ্টলে বিকিকিনিতে ব্যস্ত ছিলেন  প্রবাসীরা , তাঁরা দেশীয় সংস্কৃতির বিকাশে এ ধরণের শুশৃঙ্খল আয়োজনের জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বাংলাদেশী শিল্পীদের  সুরের মূর্ছনা বিমোহিত দর্শকদের মাতিয়ে রাখে ,শিল্প-সংস্কৃতি,সংগীত ও চির তারুণ্যের শহর প্যারিস যেন কিছুসময় বাংলা গাণের সুরে একাকার হয়ে যায়। বাংলাদেশীদের পাশাপাশি ভিনদেশীরা ও নাচে তালে অনুষ্ঠানকে আলোকিত করে, সংস্কৃতি যেন স্বদেশ বিদেশের মধ্যে এক মেলবন্ধন এঁকে দিয়েছে। 
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ইসরাত খানম ফ্লোরা ও হ্যাপি চৌধুরী। 

ReplyForward
print

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.