মঙ্গলবার , 16 জুলাই 2019
ব্রেকিং

বর্ণাঢ্য আয়োজনে ইতালীতে মহিলা সমাজ কল্যান সমিতির বৈশাখ উদযাপন

মেহেনাস তাব্বাসুম শেলি রোম প্রতিনিধিঃ

রাজধানীর রোম শহরে কথা হবে প্রাণ খুলে, জানিয়ে দিলাম আমি তোমাকে! দেখা হবে রে হবে দেখা হবে রে হবে, দেখা হবেই হবে পহেলা বৈশাখে মাঠে”

বছর ঘুরে আবার এলো উৎসব প্রিয় বাঙালির আনন্দঘন দিন পহেলা বৈশাখ। গুটি গুটি পায়ে বাংলা বছর এসে থামলো ১৪২৬ এর দুয়ারে। প্রতিবছর সব শ্রেণির সব বাঙালি এ দিনটিকে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পালন করে ঠিক তার ব্যাতিক্রম নয় ইতালী প্রবাসী বাঙালিরাও।

ইতালীর রাজধানী রোমের মহিলা সমাজ কল্যান সমিতির আয়োজনে গত ২৫এপ্রিল বৃহস্পতিবার পালিত হলো বৈশাখী বরণ উৎসব ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

ছুটির দিন না থাকলেও বিপুলসংখ্যক প্রবাসীর পদচারণায় স্থানীয় সময় বিকেলটি মুখরিত হয়ে ওঠে বৈশাখী মাঠ via francessco পার্ক প্রাঙ্গণ। আর বৈশাখী সাজ রঙিন পাঞ্জাবি, বৈশাখী শাড়ী পরে যোগদেয় নানান বয়সের প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

এতে যোগ দেন ইতালিতে বসবাসরত বাংলাদেশীসহ বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরা। মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতি ইতালী সভাপতি লায়লা শাহ’র সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক শামীমা জামান রুনু ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাহমিনা আক্তার এর যৌথ পরিচালনায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফ্রান্স থেকে আগত নারী অধিকার নেত্রী বিকশিত নারী সংঘের সভাপতি সৈয়দা তৌফিকা শাহেদ। এছাড়াও মেলায় আরো অংশগ্রহণ করেন ইতালীর বিভিন্ন আঞ্চলিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠন ইতালী আওয়ামীলীগ , ইতালী বিএনপি, ইপিবিএ ইতালী, বৃহত্তর ঢাকা সমিতি, ঢাকা জেলা সমিতি, বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতি ইতালী, জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইতালী, বরিশাল বিভাগ সমিতি, নোয়াখালী জেলা সমিতি, লাভান্ডেরিয়া সমিতি, মহিলা সংস্থা ইতালী, মহিলা অঙ্গন তরবাল্লামনাকা, তুসকোলানা নারী সংস্থা, নব জাগরন নারী কল্যান সমিতি, বাংলাদেশ খ্রিস্টান মহিলা এসোসিয়েশন ইতালীসহ রোমের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

প্রথম পর্বের শুরুতে, প্রবাসে বেড়ে উঠা শিশুদের নৃত্য, ছড়া গান, মহিলাদের জন্য ছিল বালিশ খেলা, পুরুষদের হাঁড়ি ভাঙা আর প্রবাসী রেয়ার ব্র্যান্ড শিল্পীদের যন্ত্র সংগীতের মন ভোলানো ‘এসো হে বৈশাখ, এসো, এসো সুরের আবহের মধ্য দিয়ে মাতিয়ে তোলে পুরো পার্ক।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে বাংলা কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব রবিন খান ও শ্যামল খান এর পরিচালনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয় এতে রোমের স্হানীয় শিল্পীরা গান পরিবেশন করেন স্থানীয় বাংলা সংগীতের মূর্ছনা মেলা ছিল আনন্দ মুখর। নিয়মিত বিরতি দিয়ে পরিবেশিত হয় নৃত্য। নৃত্য পরিবেশন করেন অর্পিতা শিকদার, সিমনা সরকার, রোপন্তী ঘোষ সহআরো অনেকেই।

পাশাপাশি স্থানীয় শিল্পী সেলিম আহমেদ, রত্না বসাক, কাজী জাকারিয়া, শহীদ, আতিক হাজারী, মসিউর রহমান, রিপন খান, নার্গিস হাওলাদার, ইফরোজা খানম ইফা, নার্গিস আক্তার, লায়লা শাহ্ গান গেয়ে দর্শকদের মন জয় করে নেয়।

অনুষ্ঠানটির বিশেষ সহযোগিতায় ছিলেন সার্ভিস ইতালী, টাটা ম্যাস্ক, জেবি ম্যাঙ্গো, সুবাস বাসমতি রাইচ, গাজীপুর জেলা সমাজ কল্যান সমিতি, জামিল আলিমেন্টারী, সুন্দরবন রেস্টুরেন্ট, বাংলার স্বাদ রেস্টুরেন্ট, রসই রেস্টুরেন্ট, ফুলের বাংকার লায়লা ফেশন সহআরো অনেকেই।

পরিশেষে মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির পক্ষ থেকে সভাপতি লায়লা শাহ বলেন, প্রতি বছর বৈশাখী মেলা আয়োজন করে থাকি আমরা। এবার যেভাবে আপনাদের সহযোগীতা করেছেন আগামীতে সহযোগিতা করলে আগামীতে আরো সুন্দর অনুষ্ঠান আপনাদের উপহার দিতে পারব ইনশাহআল্লাহ। তিনি যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের নাম ঘোষনা করেন এবং তিনি সকলকে অংশগ্রহণ ও সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

print

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.