বৃহস্পতিবার , 12 ডিসেম্বর 2019
ব্রেকিং

সিলেট আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি, নারী নির্যাতনের ঘটনা উদ্বেগ উৎকন্ঠা

সাফি মেহেরাজ চৌধুরী, প্যারিস –index

সিলেটে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি হয়েছে। খুন, ধর্ষণ, অপহরণ, ইভটিজিং, চিনতাই, ডাকাতি চুরিসহ অপরাধ প্রবণতা আশংকাজনক ভাবে বেড়ে গেছে। স্কুল-কলেজগামী ছাত্র-ছাত্রী সহ মহিলারা রাস্তায় বেরোলেই কেউ না কেউ ইভটিজিংয়ের শিকার হচ্ছেন। কিছুদিন আগে নগরীর রায়নগর এলাকায় বোনের সাথে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় নির্মমভাবে প্রাণ হারিয়েছেন একজন ভাই। বখাটেদের প্রেম প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় অনেক মেয়েরা লাঞ্চিত হয়েছেন। অপহরণের শিকার হয়েছেন অনেক যুবতী।
সিলেটে সাম্পতিকালে নারী নির্যাতনের ঘটনা আশংকাজনক ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। স্বামী কর্তৃক নির্যাতন থেকে শুরু করে কথিত প্রেমিক বা দুর্বৃত্তদের হাতে নারীরা হচ্ছেন লাঞ্চিত ও নিগৃহিত। শুধু তাই নয় নারীদের নিষ্ঠুরভাবে খুন করে লাশ গুম করে দেওয়া হচ্ছে। হাওর-বিল-খাল বা রাস্তার ধার থেকে উদ্ধার করা হচ্ছে নারীদের লাশ। সম্প্রত্তি সিলেটের এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে প্রকাশ্যে দিবালোকে খাদিজা নামক একজন অনার্স পরীক্ষার্থীকে তার কথিত প্রেমিক বদরুল চাপাতি দিয়ে নৃশংসভাবে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। মৃত্যুপথযাত্রী খাদিজাকে প্রথমে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

চিকিৎসকেদর আন্তরিক প্রচেষ্টায় খাদিজা বেঁচে গেলেও তাকে জীবনে বয়ে বেড়াতে হবে মারাত্মক এক শারিরীক ও মানসিক যন্ত্রনা নিয়ে। এরকম অবস্থায় নারীদের নিরাপত্তা বিধানের দাবি তুলেছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন। বিশেষ করে বর্তমানে ক্ষমতাশীন দল আওয়ামীলীগের ছাত্র ও যুব সংগঠন বাংলাদেশের ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা কর্মীদের বেপরোয়া আচরণ ও দাপটে মানুষের মধ্যে আতংক দেখা দিয়েছে। নারী নির্যাতনের অধিকাংশ ঘটনাই ঘটছে এসব সংগঠনের ক্যাডারদের মাধ্যমে। নির্যাতিত নারীরা এখন আইনের আশ্রয়ে যেতে পারছেন না। নারী নির্যাতনকারীদের বিরুদ্ধে মামলা দিতে গিয়েও বিপাকে পড়ছেন। সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের দাপটে ও বাধায় আইনী সহায়তাও পাচ্ছে না অত্যাচারিত ও লাঞ্চিত মানুষ। আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে প্রভাবিত করে নির্যাতিত মানুষদের বিচার প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত করে রেখেছে শাসক দলের ক্যাডাররা। এ অবস্থা থেকে উত্তোরনে সকল মহলের সাহায্য কামনা করেছেন নির্যাতিতরা ।

print

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.